Spread the love
image_pdfimage_print

ঢাকা, বাংলাদেশ, অক্টোবর ৬, ২০১৭] গতকাল বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে হুয়াওয়ে মেটবুক উন্মোচন করেছে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিঃ। আধুনিক ব্যবসায়িক পেশাদারদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে টু-ইন-ওয়ান ফ্ল্যাগশিপ ল্যাপটপ তৈরি করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিনিয়ত দৃষ্টি-নন্দন ও শক্তিশালী মোবাইল কনজ্যুমার ডিভাইস তৈরি করে আসছে হুয়াওয়ে, আর এরই ধারাবাহিকতায় মেটবুক আনল প্রতিষ্ঠানটি। উক্ত প্রোডাক্টিভিটি টুলটি মোবিলিটি, উচ্চ কর্মদক্ষতা, কাজ ও বিনোদনের সম্মিলিত উদ্ভাবন।

যেকোনো মূহুর্তে নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগের ক্ষেত্রে মেটবুকটি বহনযোগ্য ও দৃষ্টি-নন্দন নকশার একটি উপযুক্ত সংমিশ্রন। রূপান্তর করা যায় এবং সহজে ব্যবহারযোগ্য এমন ডিভাইস ব্যবহারে আগ্রহীদের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে প্রিমিয়াম ক্যাটাগরির মেটবুকটি তৈরি করা হয়েছে।

“বিশ^ব্যাপি দ্রুত বর্ধনশীল প্রযুক্তি নির্ভর পেশাদারদের গুরুত্ব এবং বাংলাদেশের অগ্রগামী অর্থনীতিকে কেন্দ্র করে হুয়াওয়ে প্রতিনিয়ত এমন সব অভিনব প্রযুক্তি নিয়ে আসে যেগুলো এ দেশের মানুষের চাহিদা পূরণে সক্ষম। আধুনিক বিশে^ ব্যবসা সংক্রান্ত পেশাদারদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং কার্যকর একটি ডিভাইস হচ্ছে এই মেটবুক যেখানে নতুনত্বের পাশাপাশি প্রয়োজনীয় সকল ফিচার সন্নিবেশিত করা হয়েছে। আমাদের সম্মানিত ক্রেতাদের জীবনকে আরো বেশি সহজভাবে যাপনের সুযোগ তৈরির লক্ষ্যে উক্ত ডিভাইসটি অত্যাধুনিক একটি উদ্ভাবন”, বলেন হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিঃ-এর সিইও ঝাও হাওফু।”

রাজধানীর রেডিসন হোটেলে আয়োজিত উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব তোফায়েল আহমেদ, তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক, বাংলাদেশে নিযুক্ত চীন দূতাবাসের ডেপুটি চিফ অব মিশন শেন উই, বিশ^সেরা ক্রিকেট অলরাউন্ডার ও হুয়াওয়ে বাংলাদেশের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর সাকিব আল হাসান, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের হুয়াওয়ে এন্টারপ্রাইজ বিজনেস গ্রুপের প্রেসিডেন্ট ঝ্যাং লিন এবং হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিঃ-এর সিইও ঝাও হাওফু প্রমূখ।

স্মার্টফোনের মোবিলিটির সঙ্গে ল্যাপটপের কর্মক্ষমতা ও উৎপাদনশীলতাকে কাজে লাগানো হয়েছে মেটবুকটিতে। ডিভাইসটি তৈরি করা হয়েছে উন্নতমানের অ্যালুমিনিয়াম উপাদান দিয়ে, ফলে এটি দেখতে অভিনব ও অভিজাত ঘরাণার। অন-দ্যা-গো বা চলার পথের শক্তিশালী ফিচারসমৃদ্ধ মেটবুকটি মাত্র ৬৪০ গ্রাম, ফলে যে কোনো স্থানে বহনযোগ্য।

মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমচালিত মেটবুকটি ৭ম প্রজন্মের ইন্টেল কোর প্রসেসর ক্ষমতাসম্পন্ন যা দুর্দান্ত গতিতে যে কোনো ব্যবসায়িক কাজ করতে সক্ষম। সর্বোচ্চ ১৬ জিবি ডিডিআরফোর র‌্যাম এবং সর্বোচ্চ ২৫৬ জিবি সলিড-স্লেট ড্রাইভ (এসএসডি)-এর সঙ্গে সর্বোচ্চ ১টিবি হার্ডডিস্ক ড্রাইভ ফিচারসমৃদ্ধ ডিভাইস হুয়াওয়ে মেটবুক ক্রয় করা যাবে। অভিনব ষ্ট্যাকড হার্ডওয়ারের সমন্বয়ে তৈরি করায় প্রসেসরকে ঠান্ডা রাখার জন্য মেটবুকে কোনো ফ্যান ব্যবহার করা হয়নি, ফলে ব্যবহারের সময় এটি থাকে পুরোপুরি জিরো নয়েজ বা আওয়াজহীণ। এছাড়া মেটবুকটি ডলবি অ্যাটমস সাউন্ড সিস্টেম, ডুয়েল ডিজিটাল মাইক্রোফোন এবং ডুয়েল স্পিকার প্রযুক্তিসম্পন্ন।

গতানুগতিক ইন্টারনেট সংযোগ যদি নাও থাকে, তখন ওয়াই-ফাই মোবাইল হটস্পট ফিচারের মাধ্যমে অনায়াসে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের সঙ্গে যেকোনো তথ্য-উপাত্ত ড্র্যাগ-এ্যান্ড-ড্রপের মাধ্যমে সহজেই আদান-প্রদানের সুবিধা রয়েছে এতে।

যেকোনো ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান কিংবা সংস্থা নতুন হুয়াওয়ে মেটবুক সিরিজের ল্যাপটপ বাল্ক পার্চেজ বা পাইকারি পদ্ধতিতে ক্রয় করতে পারবে।
-শেষ-