Spread the love
image_pdfimage_print

স্টাফ রিপোর্টার : ঝিনাইদহ : আজকের ঘটনা :
অবশেষে উৎসব মুখর পরিবেশে দীর্ঘ ২৮ বছর পর ঝিনাইদহে শুরু হয়েছে জেলা প্রশাসক আন্ত:ইউনিয়ন গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট। শুক্রবার বিকেলে শহরের বীরশ্রেষ্ট হামিদুর রহমান স্টেডিয়াম এ খেলার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন। প্রতিবছর এ ধরনের আয়োজন করার দাবী দর্শকদের। ঘড়ির কাটায় ঠিক ৩টা। হাজার হাজার উৎসুক ফুটবল প্রেমীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে ঝিনাইদহের বীরশ্রেষ্ট হামিদুর রহমান স্টেডিয়াম। জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে পতাকা ও বেলুন উড়িয়ে দীর্ঘ ২৮ বছর পর উদ্বোধন করা হয় জেলা প্রশাসক আন্ত:ইউনিয়ন গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট। নক আউট ভিত্তিক এই টুর্নামেন্টে উদ্বোধনী দিনে অংশ নেয় ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পাগলা কানাই ও শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়ন। খেলার ১৫ মিনিটের মাথায় কপাল পুড়ে পাগলা কানাই ইউনিয়নের। সারুটিয়া ইউনিয়নের ১২ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়ার সিদ্দিক গোল দিয়ে দলকে এগিয়ে নেয়। ৩৯ মিনিটে ১১ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়ার টিটো আরও এক গোল করে দলকে ২-০ গোলে এগিয়ে নেয়। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে পাগলা কানাই ইউনিয়নের ৯ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় খোকন একটি গোল করে ২-১ গোলের সমতায় আনে। নির্ধারিত ৯০ মিনিট শেষ হওয়ার কিছুক্ষন পুর্বে পেনাল্টিতে আরও এক গোল করে সারুটিয়া ইউনিয়ন।

সারুটিয়া ইউনিয়ন ৩-১ গোলে পরাজিত করে পাগলা কানাই ইউনিয়নকে। পুলিশ সুপান মিজানুর রহমান বলেন, প্রতিনিয়ত এ ধরনের আয়োজন করলে সমাজ থেকে দুর হবে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদসহ বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকান্ড। জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন বলেন, জেলাবাসীকে ক্রীড়া সংস্কৃতিকর মধ্যে দিয়ে ব্যস্ত রাখা, সংস্কৃতিক ভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যেই এ আয়োজন। তীব্র উত্তেজনাপুর্ণ এ খেলা দেখতে ছুটে আসে হাজার হাজার দর্শক। নারী দর্শকের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। প্রতিবছর এ ধরনের আয়োজন করার দাবী তাদের। তবেই গ্রাম থেকে উঠে আসবে প্রকৃত ফুটবলার। যারা উজ্জল করবে জেলা তথা দেশের মুখ। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই টুর্ণামেন্টে অংশ নিবে জেলার ৬ উপজেলার ১৬ টি ইউনিয়ন। আগামী ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল খেলা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক আবু ইউসুফ মো: রেজাউর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আছাদুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর সভার মেয়র আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জীবন কুমার বিশ্বাস, প্রেসক্লাবের সভাপতি এম রায়হানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।