Spread the love
image_pdfimage_print

নুর এ আলম ছিদ্দিকীঃএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হাওয়া বইছে ঢাকার অদূরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে এরই মধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীরা দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন।মনোনয়ন পেতে অনেকেই তৃণমূলের পাশাপাশি কেন্দ্রেও তৎপরতা বাড়িয়েছেন। তবে এ আসনে শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী প্রার্থীর ছড়াছড়ি। বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তারা নিজেদের প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি জানান দিচ্ছেন। অনেকেই গণমাধ্যম কর্মীদেরও দৃষ্টি আকর্ষণেরও চেষ্টা করছেন। অনেকটা নীরবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বিএনপির প্রার্থীরা। কার্যত, ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা বিএনপিতে রয়েছে বেশ কয়েকজন নবীন প্রার্থী। যারা মাঠে ব্যাপক দৌড়-ঝাপ করছেন তারা হচ্ছেন,জিয়া পরিষদ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব, নবীনগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ আলী আজ্জম জালাল সূর্য সেন হলের সাবেক জিএস, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় নেতা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির সহ সভাপতি সাইদুল হক সাইদ,কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও কৃষক দলের যুগ্ম সম্পাদক তকদীর হোসেন জসিম।গত মে মাস থেকে মনোনয়ন প্রাপ্তির আশায় সম্ভাব্য প্রার্থীদেরও তৎপরতা বেড়ে যায়। গোটা রমজান মাসে প্রার্থীদের পদাচারণায় মুখরিত হয় গোটা নবীনগরে। হাইকমান্ডের যোগাযোগের পাশাপাশি নির্বাচনী এলাকার জনবহুল স্থলে গণসংযোগ চালাচ্ছে।নেতাকর্মীদের নিয়ে কর্মীসভা,ই্ফতার মাহফিল,আলোচনাসভা,নেতাকর্মী সহ সকল জনসাধারণের মাঝে বিএনপির চেয়ারপারর্সন বেগম খালেদা জিয়ার ছবি সম্বলিত ভিশন-২০৩০ একটি বই বিতরণ করছেন। বিএনপির দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটার বিশেষ করে যুবক ভোটাররা প্রার্থী বাছাইয়ে নতুন মুখ ও তরুণ নেতাদের বেশি পছন্দ করছেন। প্রার্থীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন সর্বাধিক সংখ্যক সদস্য নবায়ন ও সংগ্রহের লক্ষ্যে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর): কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা ও কৃষক দলের যুগ্ম সম্পাদক মোঃ তকদির হোসেন জসিম, জিয়া পরিষদ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির অন্যতম সদস্য ও নবীনগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ আলী আজ্জম জালাল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির সহ – সভাপতি এডভোকেট আব্দুল মান্নান, সূর্য সেন হলের জিএস, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় নেতা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির সহ – সভাপতি সাইদল হক সাইদ, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সহ – সাধারণ সম্পাদক রাজীব আহসান চৌধুরী পাপ্পু এবং সাবেক এমপি প্রয়াত কাজী মোহাম্মদ আনায়োর হোসেনের ছেলে নাজমুল হোসেন তাপস । তকদীর হোসেন জসিম ১৯৯৬ সালে এ আসন থেকে জাতীয় সংসদ নির্বাচন করেন। ২০০১ সালে চার দলিয়জোটের প্রার্থী (জাতীয় পার্টি না-ফি) নির্বাচন করেন, ২০০৮ সালে বিএনপিতে যোগ দিয়ে নির্বাচন করেন কাজী আনোয়ার হোসেন সম্প্রতি ইন্তেকাল করেন।