Spread the love
image_pdfimage_print

মঠবাড়িয়া ফিরোজ, প্রতিনিধি  : আজকের ঘটনা :

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ ও গ্রামবাসী মিলে দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্রসহ রিপন কাজী (৪২) নামে এক দুর্র্ধষ ডাকাতকে আটক করেছে গ্রামবাসি। গতকাল রবিবার সকালে উপজেলার গুলিশাখালী গ্রামের সড়কে গ্রামবাসী ধওয়া করে ওই ডাকাতকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। রিপন উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের লক্ষণা গ্রামের মতিউর রহমান কাজীর ছেলে।

থানা সূত্রে জানাগেছে, গতকাল রবিবার সকাল ৬ টার দিকে উপজেলার লক্ষনা গ্রাম থেকে ভাড়ায় চালিত একটি মটর সাইকেলে করে ভান্ডারিয়ার উদ্দেশ্যে একটি ব্যাগ হাতে রওনা দেয় রিপন। এসময় তার গতিবিধি সন্দেহ হলে চালক জানতে চান ব্যাগে কি আছে ? একথা জিজ্ঞেস করলে ডাকাত রিপন দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে গ্রামবাসী মিলে ধাওয়া করে স্থানীয় জুয়েল মেম্বরের বাড়ির সামনের রাস্তা থেকে তাকে আটক করে পুলিশকে সংবাদ দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রিপনকে গ্রেফতার করেন। এসময় তার ব্যাগ তল্লাসী করে একটি দেশীয় এলএমজি বন্দুক, ৫টি কার্তুজ, টর্চলাইট, মোবাইল ফোনসেট ও চার্জার উদ্ধার করে।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে এম তারিকুল ইসলাম জানান, গ্রেফতারকৃত ডাকাত রিপন আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য। তার বিরুদ্ধে উপকূলীয় মঠবাড়িয়াসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি মামলা ও দস্যুতার অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানার এসআই মাহফুজ বাদী হয়ে রবিবার মঠবাড়িয়া থানায় অস্ত্র আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।