Spread the love
image_pdfimage_print

স্টাফ রিপোর্টার : ঝিনাইদহ : আজকের ঘটনা :
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার অধিকঅংশ গ্রামীন পাকারাস্তা গুলোর বেহাল দশা দেখলে মনে হয়না জেলার কোন উন্নয়ন হয়েছে। মানুষ থেকে শুরু করে গাড়ী ঘোরা চলাচলে জনদূর্ভগ চরম আকার ধারন করেছে। সে দিকে কর্তৃপক্ষের কোন দৃষ্টি  নেই। এসব গ্রামীন জনপদের রাস্তা গুলো কতবছর পুর্বে হয়েছে জন সাধারণের মনে পড়ে না। এখন প্রায় সমস্ত রাস্তার ছাল চামড়া উঠে খানা গর্তে পরিনিত হওয়াই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, হরিনাকুন্ডু উপজেলার রিশখালী বটতলা থেকে হিঙ্গেরপাড়া, রিশখালী বাজার থেকে গবরাপাড়া, রিশখালী স্কুল থেকে সোনাতনপুর, হরিনাকুন্ডু হাসপাতাল মোড় থেকে ভূইয়াপাড়া, সোনাতন পুর থেকে ডাকবাংলা বাজার, বৈাডাঙ্গা বাজার থেকে ভাতুড়িয়া বটতলা, ভাতুড়িয়া বাজার থেকে ভালকির রাস্তা উল্লেখযোগ্য।

ঝিনাইদহ সদরের কয়েকটি রাস্তা যেমন পোতাহাটির রাস্তা, সাধুহাটি হারেজ মোড় থেকে মাগুরা পাড়া, ১২মাইল থেকে রাঙ্গের পোতা রাস্তা, বোড়াই মোড় থেকে এনাইতপুর, ডাকবাংলা ছ-মিল হতে নাথকুন্ডু, নারায়নপুর ত্রিমহনী থেকে বাজার গোপালপুর, মোজাম চেয়ারম্যানের বাড়ি থেকে জিয়ালা, বৈাডাঙ্গা বাজার থেকে শাটতলা, বৈাডাঙ্গা ছ-মিল থেকে শাহেব নগর, মধুহাটির রাস্তা, হলিধানির রাস্তা শেলে রামচন্দ্রপুর, গান্না ইউনিয়নের ও সাগান্না ইউনিয়নের রাস্তা। গোয়াল পাড়া বাজার থেকে বাকড়ি বাজার হয়ে পরানপুর গ্রামের মাঝ দিয়ে হরিসংকরপুর, হাট গোপালপুর থেকে কোদালিয়া, আড়ুয়াডাঙ্গা থেকে রুপদহ ও মধুপুর বাজার, দুর্গাপুর থেকে আশুরহাট রাস্তা সহ আরও অনেক রাস্তার একই অবস্থা। এ সমস্ত গুরুত্বপুর্ণ রাস্তায় চলাচলের পরিবেশ হারিয়ে পড়েছে। ফলে প্রতিদিন হাজার ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে সাধারন মানুষের।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়ন ও হরিনাকুন্ডু উপজেলা নিয়ে ঝিনাইদহ ২ আসন। এই আসনে ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী শফিকুল ইসলাম অপু নৌকা প্রতীকে জয়লাভ করে ২০১৪ সালের নির্বাচনে সতন্ত্র প্রার্থী তাহাজিব আলম সিদ্দিকীর নিকট হেরে যান। ঝিনাইদহ ২ আসনের জনসাধারণের অভিযোগ ছিল শফিকুল ইসলাম অপু তেমন কোন উন্নয়ন করেনি। ঝিনাইদহ সদর ও হরিনাকুন্ডুুর উপজেলার ঘুরে দেখা গেছে গ্রামীণ জনপদের রাস্তা গুলোর বেহাল দশা দেখার কেউ নেই। সাধারন মানুষ বলেছে সব জন প্রতিনিধিরাই সমান । আমার তাদের নিকট খেতে চাইনি অথচ আমাদের রাস্তাগুলো তো একটু চলাচলের উপযুক্ত করে দেবে। এ প্রসঙ্গে উক্ত এলাকা ঝিনাইদহ ২ আসনের সংসদ সদস্য তাহাজিব আলম সিদ্দিকীর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি।