Spread the love
image_pdfimage_print

স্টাফ রিপোর্টার : ঝিনাইদহ : আজকের ঘটনা :
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার আড়–য়াকান্দি গ্রামে বিলকিস (৩০) নামে গৃহবধুকে মুখে বিষ ঢেলে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি যশোরের চৌগাছা উপজেলার বড়খানপুর গ্রামের উমোন মন্ডলের মেয়ে ও কোটচাঁদপুরের এলাঙ্গী গ্রামের জাহিদুল ইসলামের স্ত্রী। বুধবার মধ্য রাতে স্বামী ও সতিন মিলে বিলকিসকে হত্যা করে লাশ ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ফেলে পালিয়ে যায় তারা। বৃহস্পতিবার পুলিশ লাশ ময়না তদন্ত করে ভিসেরা রিপোর্টর জন্য পাঠিয়েছে। স্বামী ও পিতার বাড়ি ছেড়ে আড়–য়াকান্দি গ্রামে বিলকিস খাতুনের মৃত্যুর ঘটনা রহস্যের জন্ম দিয়েছে। তাকে ফুসলিয়ে ডেকে এনে হত্যা করা হতে পারে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি ইউনিয়নের মেম্বর মারুফ জানান, আড়–য়াকান্দি গ্রামের তারক নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে বিলকিসকে মরধর করার পর মুখে বিষ ঢেলে দেয় বলে শুনেছি।

তিনি এটাকে হত্যাকান্ড বলেই সন্দেহ করেন। বিলকিসের পিতা উমোন মন্ডল অভিযোগ করেন, তার মেয়ে প্রায় ৯ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের সংসারে অশান্তি ছিল। তার জামাই জাহিদুল ঝিনাইদহের আড়–য়াকান্দি গ্রামে আরেকটি বিয়ে করে। সেখানেই তার দুই সন্তানের সামনে নির্যাতনের পর মুখে বিষ ঢেলে বিলকিসকে হত্যা করা হয়। এরপর তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার এসআই সুজন কুমার মন্ডল বলেন, মেয়েটির পিতার অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা লাশের ময়না তদন্ত করে ভিসেরা রিপোর্টের জন্য ঢাকায় পাঠিয়েছি। রিপোর্ট আসলেই পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, লাশের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায় নি।